বিশ্বকাপ ফুটবল নিয়ে মাহবুবুল এ খালিদের গান

music


মানুষের মধ্যে সম্প্রীতির বার্তা নিয়ে অনলাইন ও ইউটিউবে মুক্তি পেয়েছে রাশিয়া বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮ নিয়ে গান। ‘বিশ্ব তোমার দৃষ্টি ফেরাও’ শিরোনামের গানটি লিখেছেন এবং সুর করেছেন মাহবুবুল এ খালিদ। সংগীতায়োজন করেছেন আতিকুর রহমান রোমান। আর এতে কণ্ঠ দিয়েছেন ক্লোজআপ ওয়ান তারকা পুলক অধিকারী এবং ‘বাংলাদেশ আইডল’ সানজিদা মাহমুদ নন্দিতা।

শনিবার গানটি মাহবুবুল এ খালিদের নিজস্ব ওয়েবসাইট খালিদসংগীত ডটকম (www.khalidsangeet.com)-এ মুক্তি দেয়া হয়। একই সঙ্গে গানটির একটি মিউজিক ভিডিও মাহবুবুল এ খালিদের ইউটিউব চ্যানেল ‘খালিদসংগীত’-এ প্রকাশ করা হয়।

‘বিশ্ব তোমার দৃষ্টি ফেরাও, বাহুবলে নয় ফুটবলে/চলো সবাই দল বেঁধে যাই, খেলার মাঠে সকল বিভেদ ভুলে।’ এমন কথামালায় শুরু হয়েছে গানটি।

গানটি সম্পর্কে কণ্ঠশিল্পী নন্দিতা বলেন, খালিদ ভাইয়ের লেখা গানগুলো সবসময় একটু ভিন্নধর্মী হয়। তার গানের কথায় কোনো না কোনো মেসেজ থাকে। ফুটবল বিশ্বকাপ নিয়ে তার লেখা এবং সুর করা নতুন এই গানটিও এর ব্যতিক্রম নয়। আশা করছি দর্শক-শ্রোতাদের কাছে গানটি অনেক ভালো লাগবে।

গীতিকার ও সুরকার মাহবুবুল এ খালিদ বলেন, মানুষে মানুষে সাম্য ও সম্প্রীতি গড়ার ক্ষেত্রে খেলাধুলা একটি কার্যকর মাধ্যম। বিশেষ করে ফুটবল বিশ্বকাপের আবেদন সবচেয়ে বেশি। ‘বিশ্ব তোমার দৃষ্টি ফেরাও’ গানটির কথা ও সুরে এই বিষয়টি প্রাধান্য দেয়া হয়েছে। যাতে ফুটবল বিশ্বকাপকে ঘিরে সবাই যুদ্ধ ও বিবাদ ভুলে ভালোবাসা ও মৈত্রীর বন্ধনে আবদ্ধ হয়। শক্তি প্রদর্শন বন্ধ করে সবাই একসঙ্গে ফুটবল উন্মাদনায় মেতে ওঠে। কাউকে আর নিজ দেশ থেকে বিতারিত হয়ে বিপদসংঙ্কুল পথ পাড়ি দিতে গিয়ে মারা পড়তে না হয়। কিংবা শরণার্থী হয়ে ভিন দেশে মানবেতর জীবন যাপন করতে না হয়।

জানা গেছে, মাহবুবুল এ খালিদ বিভিন্ন বৈচিত্রময় বিষয়ে গান লেখেন এবং সুর করেন। তার গানের বেশিরভাগ জুড়ে আছে মানবপ্রেম। সংগীত বিষয়ক ওয়েবসাইট ‘খালিদসংগীত ডটকম’-এ তার লেখা তিন শতাধিক গান মুক্তি পেয়েছে। যার অধিকাংশ গানে তিনি নিজে সুর দিয়েছেন।

এছাড়াও, আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল, ইমন সাহা, ইবরার টিপু, কিশোর দাশসহ অনেকেই তার কথায় সুরারোপ করেছেন। গানগুলোতে কণ্ঠ দিয়েছে দেশের জনপ্রিয় অর্ধশতাধিক শিল্পী।

বিডি প্রতিদিন/১৯ মে ২০১৮/এনায়েত করিম


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *