শ্রীদেবীর মৃত্যুতে বনি কাপুরের দিকে অভিযোগের তীর

Showbiz


শ্রীদেবীর মৃত্যু নিয়ে এতোদিন নিশ্চুপ ছিলেন অভিনেত্রীর পরিববার। তবে এবাব নীরবতা ভেঙে এই বিষয়ে কথা বললেন শ্রদেবীর চাচা বেণুগোপাল রেড্ডি। আর সেখানে শ্রীদেবীর মৃত্যুর জন্য স্বামী বনি কাপুরকে দুষলেন তিনি। এর আগে, বলিউডের অন্দর মহলে জোর গুঞ্জন, চেন্নাইয়ের বাংলো শ্রীদেবীর বোন শ্রীলথাকে লিখে দিয়ে তার মুখ বন্ধ করিয়ে রেখেছেন বনি কাপুর।

এবেণুগোপালের দাবি, ”শ্রীদেবীর মনের মধ্যে অনেক কষ্ট ছিল। শেষ কিছু সিনেমার প্রযোজনা করে প্রচুর আর্থিক ক্ষতি হয়েছিল বনি কাপুরের। সেই ক্ষতি পূরণ করতেই শ্রীদেবীর সম্পত্তিও বিক্রি করে দিতে দিয়েছিলেন বনি কাপুর। তাই শ্রীদেবীর মনের মধ্যে অনেক কষ্ট ছিল, তবুও এসব প্রকাশ্যে না আনার জন্যই তার সব সময় হাসি মুখে থাকতো। এমনকি সেই আর্থিক ক্ষতি সামাল দিতেই শ্রীদেবীকে আবারও অভিনয় জগতে ফিরে আসতে হয়েছিল বলেও দাবি করেন অভিনেত্রীর চাচা।

শ্রীদেবী যে নিজেকে সুন্দর রাখতে বহুবার প্লাস্টিক সার্জারি করিয়েছিলেন সেকথাও মেনে নেন তার বেণুগোপাল রেড্ডি। পাশাপাশি এদিন সম্পত্তি নিয়ে শ্রীদেবী ও তার বোন শ্রীলথার দীর্ঘদিনের লড়াইয়ের কথাও জানান তিনি। বলেন, এই সম্পত্তি নিয়েই দীর্ঘদিন দুই বোনের মধ্যে কথা বন্ধ ছিল।

রেড্ডি আরও জানান, ‘শ্রীদেবীর মা কোনোদিনই চাননি যে তার মেয়ে বনি কাপুরকে বিয়ে করুক। যে কারণে বহুবার তার বাড়িতে এলে তিনি বনি কাপুরের সঙ্গে ঠিকভাবে কথা পর্যন্ত বলতেন না। কিন্তু ঘটনাচক্রে শ্রীদেবী সেই বনি কাপুরকেই বিয়ে করল। এরপর বিয়ের পর তার সৎ ছেলে অর্জুন কাপুরের মন পেতে অনেক কাঠখড় পোহাতে হয়েছিল শ্রীদেবীকে। এমনকি এনিয়ে কিছু আত্মীয় স্বজনদের কাছেও তাকে অনেক অপমান সহ্য করতে হয়। সেসময় তার দুই সন্তান জাহ্নবী ও খুশির ভবিষ্যৎ নিয়েও শ্রীদেবী উদ্বিগ্ন ছিল বলেও দাবি করেন তিনি।

বিডি-প্রতিদিন/১১ মার্চ, ২০১৮/মাহবুব


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *