‘স্বপ্নজাল’র মায়াজালে দর্শকরা

Showbiz


‘সুন্দর গল্পের বাংলা সিনেমা’ প্রেক্ষাগৃহ থেকে ‘স্বপ্নজাল’ দেখে বের হওয়ার পর মোটাদাগে সব দর্শকরাই এটা স্বীকার করে নিয়েছেন। বেশিরভাগ দর্শকরা সিনেমার শিল্পী নির্বাচন, চিত্রায়ন, গানের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছেন।

প্রথম ছবিতেই আলোচনা সৃষ্টি করেছিলেন গিয়াস উদ্দিন সেলিম। ‘স্বপ্নজাল’ সেই ১০ বছর আগের ‘মনপুরা’কে ছাড়িয়ে যাবে কী না নিয়ে সবাই যেন অধীর হয়ে ছিলেন।

ছবিটি যে শোরগোল তুলতে যাচ্ছে তার আঁচ পাওয়া গেছে টিজার ও গানে। প্রিমিয়ারে ছবিটি দেখার পর সাধারণ চলচ্চিত্র প্রেমীদের পাশাপাশি প্রশংসায় পঞ্চমুখ হন লেখক আনিসুল হক, কবি নির্মুলেন্দু গুণ,  প্রখ্যাত অভিনেতা আফজাল শরীফ, নির্মাতা দীপঙ্কর দীপনরাও।

গত ৬ এপ্রিল মাত্র ২০টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে ‘স্বপ্নজাল’। এখন দর্শকদের আশা ‘স্বপ্নজাল’র হল সংখ্যাও আরও বাড়বে।

গিয়াস উদ্দিন সেলিম গুণী নির্মাতা তাতে কোনো সন্দেহ নেই। দর্শকদের কথা, ছবিটি বিনোদনের পূর্ণাঙ্গ একটি প্যাকেজ। শ্যামলী হলে ‘স্বপ্নজাল’র সন্ধ্যার শো দেখে বের হচ্ছিলেন আতিক রহমান। বললেন, শুভ্রার (নায়িকা পরীমণি) প্রেমে পড়ে গেছি। ফজলুর রহমান বাবু অসাধারণ অভিনয় করেছেন।

একই কথা আতিকের বন্ধু প্লাবনের মুখেও। শুভ্রার ঘোর থেকে তিনি যেন কিছুতেই বের হতে পারছেন না।

অনিলা নামের আরেকজন বললেন, সংলাপগুলো এককথায় অসাধারণ, গানের সুর এখনো যেন বেজে চলেছে। গত কয়েক বছরের মধ্যে আমার দেখা সেরা সিনেমা। বিদেশের যেসব ছবি থেকে নকল করে বাংলা ছবি তৈরি হয় তার চেয়ে অনেকগুণ ভালো ‘স্বপ্নজাল’।

বিডি প্রতিদিন/১০ এপ্রিল ২০১৮/আরাফাত


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *